টাকার রেট

দুবাই টাকার রেট – দুবাই ১ দিরহাম সমান কত টাকা?

প্রবাসী ব্লগে আপনি যদি আজকের দুবাই টাকার রেট কত বা দুবাই দুবাই ১ টাকা বাংলাদেশের কত টাকা কিংব দুবাই ১ দিরহাম সমান কত টাকা সেটি জেনে নিতে চান, তাহলে জানুন এই আর্টিকেল থেকে।

অর্থাৎ এখানে আলোচনা করা হবে সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী দুবাইয়ের মুদ্রাকে বাংলাদেশি টাকা কনভার্ট করার ক্ষেত্রে আপনি কত টাকা পাবেন সেটি রিলেটেড তথ্য।

দুবাই টাকার রেট

সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী আপনি যদি দুবাইয়ের মুদ্রা কে বাংলাদেশি মুদ্রায় রূপান্তর করে নেন, তাহলে দুবাই ১ দিরহাম বাংলাদেশি টাকা কত টাকা হবে?

অথবা দুবাইয়ের যে অন্যান্য পরিমাণের মুদ্রা রয়েছে সেই মুদ্রাকে বাংলাদেশি টাকা কনভার্ট করলে দুবাই টাকার রেট টাকা হবে, সেটি নিচে থেকে জেনে নিতে পারবেন।

দিরহামটাকার রেট
১ দুবাই দিরহাম২৯ টাকা ৯২ পয়সা।
৫ দুবাই দিরহাম১৪৯ টাকা ৫৯ পয়সা।
২০ দুবাই দিরহাম৫৯৮ টাকা ৩৬ পয়সা।
৫০ দুবাই দিরহাম১,৪৯৫ টাকা ৯০ পয়সা।
১০০ দুবাই দিরহাম২,৯৯১ টাকা ৮০ পয়সা।
৫০০ দুবাই দিরহাম১৪,৯৫৯ টাকা ০০ পয়সা।
১,০০০ দুবাই দিরহাম২৯,৯১৭ টাকা ৯৯ পয়সা।
১০,০০০ দুবাই দিরহাম২৯৯,১৭৯ টাকা ৯৪ পয়সা।

উপরে যে তথ্যটি আলোচনা করা হয়েছে সেটি হলো সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী দুবাই টাকার রেট।

প্রবাসীরা যেহেতু এক্সচেঞ্জ হাউজ এর মাধ্যমে টাকা পাঠিয়ে থাকেন, সেক্ষেত্রে আপনি এখানে বর্ণিত টাকার চেয়ে ২.৫ শতাংশ টাকা বেশি পাবেন।

দুবাই ১ টাকা বাংলাদেশের কত টাকা?

এছাড়াও দুবাই ১ টাকা বাংলাদেশের কত টাকা কিংবা দুবাই ১ দিরহাম সমান বাংলাদেশের কত টাকা হতে পারে? সেই রিলেটেড তথ্য নিচে থেকে জেনে নিন।

দুবাই ১ টাকা বাংলাদেশের কত টাকা?
দুবাই ১ টাকা বাংলাদেশের ২৯ টাকা ৯২ পয়সা।

উপরে যে তথ্যটি আলোচনা করা হয়েছে সেটি হলো দুবাইয়ের এক দিরহাম সমান বাংলাদেশের কত টাকা হয় সেই রিলেটেড একটি আলোচনা।

এছাড়াও এটি আজকের বাংলাদেশের ব্যাংক রেট বললেও ভুল হবে না। কারণ আপনি যদি ব্যাংকে লেনদেন করেন তাহলে উপরে উল্লেখিত দুবাই টাকার রেট কিছু রদবদল করে লেনদেন করতে পারবেন।

দুবাই মুদ্রা পরিচিতি

প্রত্যেকটি দেশের একটি ইউনিক মুদ্রা রয়েছে, যে মুদ্রার মাধ্যমে সেই দেশের অভ্যন্তরে মানুষজন তাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস ক্রয় করে থাকেন।

ঠিক একই রকমভাবে দুবাইয়ের একটি ইউনিক মুদ্রা রয়েছে। যে মুদ্রার মাধ্যমে সেই দেশের অভ্যন্তরের লোকজন তাদের দেশের অভ্যন্তরে লেনদেন করতে পারেন।

দুবাইয়ের মুদ্রার নাম হল সংযুক্ত আরব আমিরাতের দিরহাম । এবং এই মুদ্রা কোড হল AED. মূলত তাদের এই মুদ্রাকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দিরহাম বলা হয়। অনেকে আবার এটিকে শর্টকাটে দুবাই দিরহাম হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

এই দেশের অভ্যন্তরে টাকা লেনদেন করার জন্য বিভিন্ন রকমের ব্যাংক নোট এবং কয়েন রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি টাকা লেনদেন করতে পারেন।

সেই দেশের অভ্যন্তরে লেনদেন করার জন্য যে সমস্ত ব্যাংক নোট রয়েছে সেগুলো হলোঃ ৫, ১০, ২০, ৫০, ১০০, ২০০, ৫০০ দিরহাম। এছাড়াও স্বল্প ব্যবহৃত ব্যাংক নোট হল ১০০০ দিরহাম।

এবং দুবাই অভ্যন্তরে লেনদেন করার জন্য যে সমস্ত কয়েন রয়েছে, সেগুলো হলোঃ ২৫ ফিলস, ৫০ ফিলস, ১ দিরহাম।

উপরে উল্লেখিত ব্যাংক নোট এবং কয়েন এর মাধ্যমে আপনি দুবাই অভ্যন্তরে টাকা লেনদেন করতে পারবেন এবং আপনার প্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয় করতে পারবেন।

দুবাইয়ের অভ্যন্তরে যে কেন্দ্রীয় ব্যাংক রয়েছে যার মাধ্যমে সেই দেশের ব্যাংকিং কার্যক্রম নিয়ন্ত্রিত হয় থাকে, সেই দুবাই কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নাম হলঃ সংযুক্ত আরব আমিরাতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক

এই ব্যাংকের মাধ্যমে দুবাই তাদের দেশের ব্যাংকিং কার্যক্রম নিয়ন্ত্রণ করে থাকে৷

প্রবাসী ব্লগ লেখক

সেরকম কিছুই জানিনা! তবে জেনে নিতে দোষ কি?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Google News